মঙ্গলবার, ১ জানুয়ারী, ২০১৩

চক্কেট

নিশা

বসুন্ধরা সিটিতে বসে পিসির দেয়া প্যাকেটটা খোলার পর নাসিফ যখন দেখসিলো এইটাতে চক্কেট আছে, তখন আমারে কইসিলো চক্কেটের ভাগ যেন ওরে দেয়া হয় । আমি কত্ত ভালো ! বাসায় এসে চক্কেটগুলাকে দুইভাগ করে একভাগ ব্রিফকেসে তালা মেরে রাখসি আর আরেকভাগ সেইদিনই একেবারে খেয়ে ফেলসি ।

তরশু মাথায় আসলো, নাসিফ এমনিতেই মুটু , বেশি চক্কেট খেলে আরও মুটু হয়া যাবে । তাই একটা চক্কেট আমি খেয়ে ফেললাম ওকে স্থূলত্বের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য ।

পরশু মাথায় আসলো, ওর মাঝে মাঝে দাঁত ব্যথা করে । তাই ওর দাঁত বাঁচানোর জন্য আরেকটা খেয়ে ফেললাম ।

কাল নাসিফের লগে ব্যাপক রাগ করসি । সারাদিন একটাও খবর নেয় নাই । "ব্যাটা ! তুমি আমারে ভুলে যাবা আর আমি শাবানার মতো তোমাকে চক্কেট খাওয়াবো ?" এই ভেবে দুইটা খেয়ে ফেলসি ।

এইমাত্র পড়তে পড়তে ভাবতেছি, "আমি ভালো থাকলে নাসিফেও ভালো থাকা হয় । আমি এই মুহুর্তে চক্কেট খেলে ভালো থাকবো । তাই আমি আসলে চক্কেট খেয়ে ওকেই ভালো রাখতেছি ।" এবং বাকি চক্কেটটাও খেয়ে ফেলসি । :-D

আমার পুত্র কন্যারা, ভালোবাসা কারে কয় আমার কাছ থেকে শেখো !

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন