বৃহস্পতিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

মাঘ ১৪২১


একুশের ভাষা আন্দোলন ছিল বাঙালির স্বাধীকার ও সাংস্কৃতিক আন্দোলন। এ আন্দোলন মুলত শুরু হয় ১৯৪৭ সালের দেশ বিভাগের পর, যার চুড়ান্ত উত্থান ঘটে ১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি। এই ভাষা আন্দোলনের মধ্যে থেকেই বাঙালি তার আত্মপরিচয় খুঁজে পায়। এই সূত্রেই ১৯৭১ সালে ৩০ লক্ষ মানুষের রক্তের বিনিময়ে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম ঘটে।

এই ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকাতে বই মেলা শুরু হয়েছে। এর মধ্যে কোলকাতায় বইমেলা দু সপ্তাহব্যাপী হয়ে গেছে। বইমেলাকে কেন্দ্র করে অসংখ্য বইপত্র প্রকাশিত হয়েছে। গল্পপাঠের লেখকদেরও বইও এসেছে।

এবারের সংখ্যায় অলাত এহসান গল্পকার ও অনুবাদকদের দীর্ঘ সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। একই সঙ্গে প্রকাশিত হল নীলকণ্ঠ পাখির খোঁজে উপন্যাসের অমর আখ্যানকার অতীন বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি দীর্ঘ সাক্ষাৎকার। এ সংখ্যাটি সেদিক থেকে সাক্ষাৎকার সংখ্যাই হয়ে উঠেছে।

গল্পপাঠ প্রকাশে দুদিন দেরি হয়ে গল। সেজন্য পাঠক ও লেখকদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করছি। এর কারণ হল অনেক লেখক লেখা দিচ্ছেন বলে দেরি করে পাঠিয়েছেন। দেরি দেখে অনেক পাঠক-লেখক মেইল পাঠিয়েছেন। উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সবাইকে ধন্যবাদ। আশা করছি আগামীতে নির্ধারিত সময়ে গল্পপাঠ প্রকাশিত হবে।  লেখাগুলো পড়ার জন্য প্রতিটি লেখার উপরে ক্লিক করুন।

আগামী সংখ্যায় কথাশিল্পী শামিম আহমেদকে নিয়ে গল্পপাঠের একটি বিশেষ আয়োজন থাকবে। 


অমর মিত্র বাংলা সাহিত্যের এ কালের সেরা লেখক। তার লেখা বহুমাত্রিক মানবিক ইতিহাসের দলিল। অসামান্য সৌকর্যময় ভাষা তাঁর আয়ত্ত্বে। আর আখ্যান লেখেন বাস্তব-অবাস্তবের ফারাক মুছে দিয়ে। এবং কালরেখা যে কোনো গণ্ডি কালোত্তীর্ণ হয়ে ওঠে। তিনি ধ্রুবপুত্র উপন্যাসের জন্য ভারতীয় সাহিত্য একাডেমী পু্রস্কার পেয়েছেন। অশ্বচরিত বিশ্বমানের উপন্যাস। এ বছর বইমেলাতে অমর মিত্রের চারটি বই প্রকাশিত হয়েছে--অমর মিত্র অমনিবাস, জননী সমুদ্র, ভিনদেশি পুরুষ দেখি ও প্রিয় উদয়ভানু।
অমর মিত্রের তিনটি গল্প এবং তিনটি আলোচনা প্রকাশিত হল।

গল্প

আলোচনা :

পিন্টু রহমান নবীন গল্পকার। তিনি লিখেছেন হাসান আজিজুল হকের শকুন গল্পটির ভেতর বাহির নিয়ে আলোচনা। নবীনের চোখে প্রবীণকে দেখার এই আয়োজনটি  আশা করছি ভালো লাগবে পাঠকদের।
হাসান আজিজুল হকের গল্প : শকুন
গল্পের কলকব্জা : হাসান আজিজুল হকের গল্প 'শকুন'
পিন্টু রহমান

এ বছর কথাসাহিত্যে বাংলা একাডেমী পুরস্কার পেয়েছেন জাকির তালুকদার। তিনি পেশায় চিকিৎসক। কিন্তু প্রকৃত পেশা করে নিয়েছেন কথাসাহিত্যকে। মফস্বলে থেকে নিরলস লেখালেখির শহীদিপথে তাঁর যাত্রা। তার মুসলমান মঙ্গল উপন্যাসটি উপন্যাসের প্রচলিত গণ্ডি ভেঙ্গে ডকুমেন্টেশন হিসেবে অসামান্য কাজ। লিখেছেন পুত্রগণ উপন্যাস। লিখছেন অসংখ্য গল্প। জাকির তালুকদারের একটি গল্প, দুটি আলোচনা ও তাঁর একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হল।

১. লেখকের পুরস্কার--পুরস্কারের লেখক
২. রেজা ঘটক--জাকির তালুকদারের উপন্যাস : চলনবিলের হু হু হাওয়ায় হাঁটতে থাকা মানুষের গান
. জাকির তালুকদারের সাক্ষাৎকার--আশির দশকে যতটা ছিল গল্প, তারচেয়ে বেশি ছিল কবজির সার্কাস
৪. জাকির তালুকদারের গল্প :  আজগর আলির হিসাববিজ্ঞান


বাঙলার পাঠশালা আখতারুজ্জামান ইলিয়াস কথাসাহিত্য পুরস্কার-২০১৪ পাচ্ছেন কথাসাহিত্যিক শাহীন আখতার। ময়ূর সিংহাসন বইয়ের জন্য তাঁকে এই মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এই উপন্যাসটি ইতিহাসভিত্তিক। মুঘল আমলের মিনিয়েচার চিত্রগুলো ব্যবহার করেছেন এই উপন্যাসে। তাঁর তালাশ উপন্যাসটিও প্রশংসিত হয়েছে। শাহীন আখতার নিয়মিত গল্প লেখেন। তাঁর ভাষায় উর্দু শব্দের অসামান্য ব্যবহার রয়েছে।


শাহীন আখতারের গল্প :  সাপ, স্বামী, আশালতা ও আমরা




শামীম আহমেদকে 'এ বছরের নির্বাচিত লেখক' হিসাবে সম্মানিত করছেন ' উদার আকাশ' সাহিত্য সংস্থা। শামিম আহমেদের প্রকাশিত বই--১। সাত আসমান, ২। বিষাদবিন্দু, ৩। ফেয়ারলনে মধুবালা, ৪। বিবেকানন্দ, ৫। মহাভারতে যৌনতা, ৬। মহাভারতে দ্রৌপদী, ৭। মহাভারতে গুপ্তহত্যা, ৮। মহাভারতে বিবাহ, ৯। আঠারো পর্ব, ১০। বিলকিস বেগমের পতনজনিত আখ্যান ও অন্যান্য গল্প। 
ইতিহাস, পুরান, দর্শন, ধর্মাধর্মে সংশয়হীন জ্ঞানের জগতের পাটাতনে শামিম লেখেন। তাঁর গল্প বা উপন্যাস ম্যাজিকাল। তাঁর তুল্য লেখক বাংলা ভাষায় খুব বেশি নেই। শামিমের একটি গল্প  প্রকাশিত হল।




মনিরা কায়েস অসামান্য গল্পকার ও গবেষক। তিনি নিভৃতচারী। প্রথাগত প্রচারের আলো সতর্কভাবে থেকে নিজেকে রাখেন দূরে। তিনি লেখেক নারী বা পুরুষের মত করে নয়--সত্যি মানুষের মতো করে। মনিরা কায়েসের একটি গল্প প্রকাশিত হল। আর গল্পটি নিয়ে আলোচনা করেছেন বনি আমিন। বনি আমিন থাকেন দিগনগরে। 

আলাপ করেছেন :  বনি আমিন


গল্প
এমদাদ রহমান কবি। গল্পকার ও অনুবাদক। তাঁর গল্পে বৈশ্বিক গল্পের ধারাটি প্রবলভাবে বহমান। এর আগে তার একটি গল্পের বই বেরিয়েছে। নাম--পাতালভূমি ও অন্যান্য গল্প।




দু'মাস আগে গল্পকার-ঔপন্যাসিক অমর মিত্র বাংলাদেশের ছিটমহল এলাকা ঘুরে গেছেন। সেখানে দেখা হয়েছিল মাহমুদ হাসান পারভেজের সঙ্গে। পারভেজ গল্প লিখতে শুরু করেছেন। তার আগে নিজেকে প্রস্তুত করছেন। নিচের গল্পটি এই প্রস্তুতি পর্বের একটি গল্প। এই গল্পটিতে তাঁর প্রবল কৌশলীপূর্ণ আখ্যান ও ভাষারীতির পরিচয় পাওয়া যাবে।


অনুবাদ : মোজাফফর হোসেন
অনুবাদ : সুদর্শনা রহমান

দেশভাগের সাহিত্য
গত বছরের গোড়াতে (২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৪ সকাল ৮.৩৫ নিউ ইয়র্ক সময়ে ) কুলদা রায়ের সাথে দুই বাংলার সাহিত্যিক ঐতিহ্যে বিশ্বাসী এই মানুষটির ফোনে আলাপ হয়। তিনি তখন বাসায় ছিলেন। বিকেলের ভ্রমণ সেরে ফিরেছেন কিছু আগে। তখন তার বয়স ৮৩ বছর। কথা শুনতে একটু সমস্যা হয়। তবে শুনতে পারলে আবার দৃঢ় কণ্ঠেই কথা বলেন। ঘরে টেলিভিশন চলছে। স্ত্রী অসুস্থ। তবু তিনি কথা বললেন সপ্রতিভ কন্ঠে। কথা হয়েছে অতীন বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস নীলকণ্ঠ পাখির খোঁজে উপন্যাসটি নিয়ে। এই উপন্যাসের বিষয় দেশভাগ। এই দেশভাগ, দেশভাগের রাজনীতি, সেকালের মানুষ, ধর্মবোধ, উপন্যাসের চরিত্রগুলো--ঈশম, জালালী, মুশকিল আশান পীর, সোনা, দাঙ্গা, মুক্তিযুদ্ধ, লটকন ফলের মায়ায়ময় জগত, আর এই উপন্যাস নির্মাণ নিয়ে আলাপ রয়েছে এই দীর্ঘ সাক্ষাৎকারটিতে। ফলে শেষ পর্যন্ত এটা সাক্ষাৎকারের বদলে নীলকণ্ঠ পাখির খোঁজের গল্প হয়ে উঠেছে।

সুনন্দা সিকদারের বাড়ি ছিল টাঙ্গাইলের দীঘাপাইত গ্রামে। তাঁর বাবা মা ভাই বোন সাত চল্লিশের দেশভাগের সময়ে দেশত্যাগ করেছিলেন। তখন সুনন্দা শিশু। সবে পড়তে শিখেছেন। থাকেন পিসির কাছে। পিসি তখনো দেশ ছাড়েনি। তার কাছেই তিনি ছিলেন ১৯৫১--১৯৬১ সাল পর্যন্ত। তাঁর নাম দয়াময়ী। এই সময়কালে তিনি দেখেছেন  হিন্দু মুসলমানের সম্প্রীতির সম্পর্কটি। তিনি সহজ মানুষের সংজ্ঞা শিখছেন মাজম দাদার কাছ থেকে। তিনি তাঁদের বাড়িতে কাজ করতেন। সে সময়কালে পঞ্চাশের  সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার শিকার হয়েছে অসংখ্য মানুষ। ওপার থেকে মুসলমান রিফুজি আসছে। এপার থেকে হিন্দুরা ওপারে গিয়ে রিফুজি হচ্ছে। কিন্তু এর মধ্যেই মানুষ ঘৃণায় নয়--ভালোবাসার মধ্যেই বেঁচে থাকতে চায়। ঘৃণা এসছে রাজনীতি থেকে। দয়াময়ীর কথা এই মানুষেরই ভালোবাসার কথা হয়ে উঠেছে। অসামান্য মানবিক দলিল  এই দয়াময়ীর কথা। 


অনুবাদকের সাক্ষাৎকার :



শিমুল মাহমুদ কবি। গল্পকার। তিনি গল্প ও কবিতার মধ্যে এক ধরনের সেতু বন্ধন সৃষ্টি করেন। উপন্যাসের ক্ষেত্রে তিনি নির্মম। সেখানে অমিত শক্তিশালী গদ্য তাঁর আয়ূধ। আখ্যানকে ইতিহাসের সুতোয় গেঁথে দেন। এই ইতিহাস ভুলে যাওয়া ইতিহাস--ভুলিয়ে দেওয়া ইতিহাস। মুছে দেওয়া ইতিহাস। এবং তিনি এই ভুলে যাওয়া ইতিহাস খুঁড়ে দেখান বিশ্ব ইতিহাসের ক্ষতচিহ্ন থেকে।

শিমুল মাহমুদের উপন্যাস নালিতাবাড়ির পরিসর থেকে চলে যায় কলম্বাসের জাহাজে। ভুমি দখলের আখ্যান হয়ে অক্ষরগুলো চলে যায় একাল থেকে সেকালে। রাষ্ট্র ব্যবস্থার কাছে মানুষ হয়ে ওঠে নয়া দাস। এভাবে রচিত হয়েছে শিমুল মাহমুদের বাংলাদেশের হারিয়ে যাওয়া জনগোষ্ঠী শীলবাড়ির চিরায়ত কাহিনী। এর আখ্যান, রচনারীতি ও ভাষাভঙ্গি বাংলা কথা সাহিত্যে নতুন।

এ সময়ের কথাসাহিত্যের দীর্ঘপথের যাত্রী আনোয়ার শাহাদাত, জাকির তালুকদার, শাহীন আখতার, শামিম আহমেদ এবং শিমুল মাহমুদ। তবে উপমহাদেশের মৌলবাদ-সাম্প্রদায়িকতার ক্রমবর্ধমান হুমকির মুখে বুদ্ধিবৃত্তিক লড়াইয়ে জাকির তালুকদার ও শাহীন আখতার যেখানে সংশয়ের ঘোরপাকে ধরা পড়েন, সেখানে আনোয়ার শাহাদাত, শামিম আহমেদ ও শিমুল মাহমুদ সংশয়হীন পরিব্রাজক। আমাদের দুর্ভাগ্য শিমুল মাহমুদ প্রচারের পেছনে থাকেন। তবে সৎপাঠকের আবিষ্কারে প্রকাশিত হন প্রবলভাবে--এগিয়ে যান সামনে।  

শিমুল মাহমুদের নিজের গল্পের ভুবন নিয়ে নিজেই লিখেছেন দীর্ঘ রচনা। লেখক ও পাঠকের জন্য এই রচনাটি অবশ্যপাঠ্য।

গল্পকারের সাক্ষাৎকার :
এ সময়ের গল্পকারদের সঙ্গে তরুণ গল্পকার অলাত এহসান তাদের গল্পের ভুবন, বইমেলায় প্রকাশিত বই, গল্প সংক্রান্ত তার ধারণা ও পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেছেন বিস্তৃত পরিসরে। এ সাক্ষাৎগুলোর মধ্যে দিয়ে এ সময়ের গল্পের প্রবণতা বিষয়ে ধারণা পাবেন লেখক ও পাঠক সকলে। 



ধারাবাহিক উপন্যাস : 
আহমেদ খান হীরক

নতুন বই
বইমেলায় বেশ কয়েকটি নতুন গল্পের বই বেরিয়েছে। সেগুলো নিয়ে ছোটো ছোটো কয়েকটি পরিচিতিমূলক লেখা প্রকাশিত হল। 


ছুটির লেখা

 লেখালেখির টিপস : 
সাজেদা হক


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন