সোমবার, ৬ জানুয়ারী, ২০১৪

শেখ তাসলিমা মুন : বর্তমান ছোট গল্প এবং কবিতার বড় দুর্দিন চলছে



শেখ তাসলিমা মুন বাংলাদেশের খুলনা জেলার মানুষ। এখন সুইডেন প্রবাসী। শহীদ পরিবারের সন্তান। একাত্তরের স্মৃতি নিয়ে তিনি একটি বই লিখেছেন। গল্পপাঠে তাঁর গল্পভাবনা লিখে পাঠিয়েছেন।
--------------------------------------------------------------------

গল্পপাঠ ১. আপনি শুরুতে কি পড়তেন?
শেখ তাসলিমা মুন ১. শুরুতে মূলত সবাই যা করে আরব্য রজনী। আমার শ্রেষ্ঠ পড়া আজ পর্যন্ত।

গল্পপাঠ ২. এর মধ্যে গল্প কখন পড়া শুরু করলেন?
শেখ তাসলিমা মুন ২.  আমি গল্প পড়া শুরু করি খুব অল্প বয়স থেকে। ১২ থেকে ১৩ বছর বয়স থেকে। আমি কিভাবে যেন শরৎ সাহিত্যে সাথে পরিচিত হই খুব অল্প বয়সে। আমি ফ্যসিনেটেট হয়ে যাই তাঁর সাহিত্যে। এরপর একের পর এক বঙ্কিম, বিভূতিভূষণ রবীন্দ্রনাথ।


গল্পপাঠ ৩.গল্প কেনো পড়েন?
শেখ তাসলিমা মুন ৩. উপন্যাস আগে পড়ায় ছোট গল্পে আমি আকৃষ্ট হতে পারিনি। কিন্তু পোষ্ট মাস্টার গল্পটি আমাকে অসম্ভব ছুঁয়ে যায়। দাদাবাবু বুঝি ফিরিয়াই আসে। এ লাইনটি আমাকে এমনভাবে নাড়া দেয় যে আমি রবীন্দ্রনাথে পুরো গল্পগুচ্ছ অল্প সময়ের ভেতর শেষ করে ফেলি।


গল্পপাঠ ৪. জীবনে প্রথম কোন গল্পটি আপনাকে বেশী স্পর্শ করেছিল? কেনো করেছিল?
শেখ তাসলিমা মুন.  উত্তর নাম্বার ৩। একই উত্তর। 

গল্পপাঠ ৫. গল্প পড়তেন কিভাবে? কোন কোন সময়ে? কোন কোন পরিবেশে? পরিবারের কেউ বা বন্ধু বা শিক্ষক কি কেউ গল্প পড়তে উৎসাহিত করেছেন? একটি গল্প কিভাবে পড়তে হয়--সেটা কি কেউ কখনো আপনাকে দেখিয়ে দিয়েছেন?

শেখ তাসলিমা মুন ৫. সেটা খুব ইন্টারেস্টিং। গল্পের বই আমার সাথে থাকতো। খাবার টেবিলে, পড়ার টেবিলে এমন কি ক্লাস বোরিং লাগলে আমি ক্লাসরুমে বসেই গল্প পড়তাম আর সেজন্য আমি পেছনে বসতাম। আমার মা খুব উপন্যাস পড়তেন। মা স্কুলে বাংলা পড়াতেন। মা খুব ভাল করে রিডিং পড়তেন ক্লাসে। এটা আমায় খুব আগ্রহী করতো কিন্তু মার বকা খাওয়ার ভয়ে আমি আমার সব পড়া লুকিয়ে পড়তাম। ছাদে চলে যেতাম। বা শীতের সময় লেপের নীচে টর্চের আলো জ্বেলে। 

গল্পপাঠ ৬. পড়ে কোনো গল্প ভালো লাগলে কি রকম অনুভূতি হয়? আপনার কি কখনো মনে হয়েছে গল্পের কোনো চরিত্র আপনার নিজের মত। বা চরিত্রটি আপনার মধ্যে চলে এসেছে। কিছুদিন তার মত করে চলাফেরা করতে শুরু করেছেন?

শেখ তাসলিমা মুন ৬. ও শিওর! গল্প আমায় দারুনভাবে প্রভাবিত করতো। আমি আমার পছন্দের চরিত্রের সাথে আইডেন্টিফাই করে ফেলতাম। কোন কোন গল্প সারা জীবন ব্যাপী আমার জীবনে প্রভাব ফেলেছে। আমি সাধারণত তেমন পাঠক যারা পড়ে বই বন্ধ করে ভুলে যায়না। গল্পটি নিয়ে ভাবে। চরিত্রগুলো নিয়ে ভাবে। চরিত্রগুলো জীবন্ত হয়ে আসে। তাদের চেহারা অবয়ব চরিত্র হাঁটা চলা ফেরা সব দেখতে পাই। হাসি। কাঁদি। এমন কি লেখক যেখানে গল্পটি শেষ করেছেন আমি তাঁর পরের ঘটনাবলী দৃশ্য কল্পনা করি। 


৭. একটি গল্পের কি কি বিষয় আপনাকে টানে? অর্থাৎ একটি ভালো গল্প হয়ে উঠতে হলে গল্পের মধ্যে কি কি বিষয় থাকা দরকার বলে মনে করেন?

শেখ তাসলিমা মুন ৭. গল্পটি যখন গল্প মনে হয়না, নিজের মনে হয়। 


গল্পপাঠ ৮. সে রকম গল্প কোন কোন গল্পকারের মধ্যে পেয়েছেন? কিছু গল্পের নাম বলুন।

শেখ তাসলিমা মুন ৮. আমার জীবনে রবীন্দ্রনাথ এখনও শ্রেষ্ঠ গল্পকার। আরও ছোট গল্পকারের গল্প আমি পড়েছি কিন্তু রবীন্দ্রনাথের ছোট গল্প শ্রেষ্ঠ গল্প। হৈমন্তী আমায় পোষ্ট মাষ্টারের মত নাড়া দেয়। হৈমন্তী চরিত্রে আমি ফিট হয়ে যাই। সমস্ত গল্প জুড়ে মনে হয়েছে হৈমন্তীর রূপে আমি বসে আছি। আমার কল্পনা শক্তি মুটামুটি ভাল। মাতৃহীন মেয়েটি পাহাড়ের গায়ে কোন শহরতলীতে তাঁর অধ্যাপক বাবার কাছে মানুষ সে চিত্র আমি দেখতে পেতাম। বিয়ের দিনে যখন তাঁর বয়স জিজ্ঞেস করে সে যখন বলে সতেরো। আমি বিষয়টি এমনভাবে অনুধাবন করি যে আমার আর হৈমন্তীর ভেতর আমি ফারাক দেখতামনা। চিলেকোঠায় জানালার গরাদে আকাশ দেখতে দেখতে একদিন জলের মাছটি কঠিন ডাঙ্গায় কিভাবে মৃত্যুবরণ করে সেটা আমায় গভীরভাবে ছুঁয়ে যায়। 

গল্পপাঠ ৯. কি কি কারণে কোনো গল্প মন্দ হয়ে ওঠে? এ রকম কি ঘটনা ঘটেছে যে এক সময় মনে হয়েছিল গল্পটি ভালো--পরে তা মন্দ লেগেছে?

শেখ তাসলিমা মুন ৯. গল্প মন্দ হয় যখন তা জীবনের হয়ে ওঠেনা। বর্ণনা শৈলী একটা বড় বিষয়। গল্পে একটা বড় ধরনের গল্প হতে হবে তা নয়। শুধু একটি বিকেল নিয়েও একটি গল্প হতে পারে। প্রশ্ন লেখক কিভাবে জীবনের ডিটেইলসে প্রবেশ করতে পারছেন এবং পাঠককে সেখানে নিয়ে যেতে পারছেন।

গল্পপাঠ ০. এ সময়ের কোন কোন গল্পকারের গল্প আপনি পড়েছেন বা পড়েন? সেগুলো কেমন লাগে? ভালো লাগলে কেনো ভালো লাগে? মন্দ লাগলে কেনো মন্দ লাগে? কারণগুলো বিস্তারিত লিখুন।

শেখ তাসলিমা মুন ১০. বর্তমান সময়ের কিছু আমার তেমন পড়া হচ্ছেনা। মনে হয় সামান্য যেগুলো চোখে পড়েছে সেগুলো আমাকে ছুঁয়ে যেতে পারছেনা। দু একটি ব্যাতিক্রম ছাড়া। পর্ণ সাহিত্য আমায় টানেনা। বর্তমান ছোট গল্প এবং কবিতার বড় দুর্দিন চলছে বলে আমার ধারনা হয়েছে।

1 টি মন্তব্য: