বুধবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

কিভাবে লিখবেন একটি প্যাচ ভরা গল্প? সাজেদা হক


গল্প তো অনেকেই লেখেন। কিন্তু একটি প্যাচ সমৃদ্ধ সফল গল্প লিখতে পারে কয়জন? আসুন জানি, কিভাবে গল্পে যোগ করা যায় একের পর এক প্যাচ!! এজন্য লেখককে কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করতে হবে। এসব ধাপই পাঠকের কাছে গল্পকে জীবন্ত করে তুলবে। সানন্দে নিজের জীবনের সাথে মিলিয়ে নেবেন পাঠকেরা।


ধাপ ১: প্রধান প্যাচ নির্ধারণ করুন:

গল্পে বা কাহিনীর একটি প্রধান প্যাচ দিন। প্রধান একটি চক্রান্তকে কেন্দ্র করে গল্প এগুতে শুরু করুক। কারণ আপনি জানেন, যে পাঠকের কাছে কি তুলে ধরতে চান? তাহলে আর দেরী কেন? ঝটপট লিখে ফেলুন ১-৩টি অনুচ্ছেদ, সেসবের এখানে-ওখানে যোগ করুন টুইস্ট!!


উদাহরণ: একটি ঝড়ে ধ্বংস হয়ে গেলো শহর। গোটা শহর পরিণত হলো একটি ধ্বংসস্তুপে, প্রাণ হারালো শত শত মানুষ। শুরু হলো আরেকটি যুদ্ধ।


ধাপ ২: সত্য কাহিনী বা ঘটনা অবলম্বন করুন:

গল্প, কাহিনী বা উপন্যাসের জন্য একটি সত্য ঘটনাকে অবলম্বন করে লিখতে শুরু করুন। পাঠককে বুঝতে সাহায্য করুন, কত সাহসিকতার সাথে উদ্ভুত সমস্যার সমাধান করেছেন আপনার প্রধান চরিত্র্র। তাকে ভাবতে সাহায্য করুন, পৃথিবীতে অসম্ভব বলে কিছু নেই!


ধাপ ৩: এর চেয়ে খারাপ কিছু নেই:

আপনার প্রধান চরিত্র্রকে এমন পরিস্থিতির মধ্যে ফেলুন, যাতে পাঠক ভাবতে বাধ্য হয় যে, এর চেয়ে খারাপ কিছু হতে পারে না। এমন দৃশ্যের অবতারণা করুন, নায়ককে এমনভাবে নিরস্ত্র করে ফেলুন, যেনো পাঠক তার প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে পড়েন!! প্রয়োজনে নায়কের চেয়েও শক্তিশালী খলনায়কের প্রবেশ ঘটান।


ধাপ ৪: একজন মিথ্যাবাদীকে প্রকাশ করুন:

গল্পের প্রয়োজনে, পাঠকের আগ্রহ বাড়াতে আর আপনার প্রধান চরিত্রকে জিতিয়ে দেয়ার ইংগিত দিতে একজন মিথ্যাবাদীকে প্রকাশ করে দিন। একটি প্যাচ খুলে দিন। যাতে পাঠক বুঝতে পারে যে, নায়ক যেকোনো সময় বিজয় অর্জন করতে পারে। যে চরিত্রগুলোকে দিয়ে মিথ্যার জাল বুনছেন তাদের একজনকে ধরিয়ে দিন।


ধাপ ৫: একটি গোপন প্রকাশ করুন:

গল্পেতো একাধিক গোপন তথ্য থাকে, তাদের মধ্যে যেকোনো একটি গোপন ঘটনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফাস করুন। প্রথমে কার চক্রান্ত প্রকাশ করবেন এটা স্থির করুন। নায়ক, খলনায়ক, নাকি অন্যকারো? তারপর, সেটা প্রকাশ করুন। পাঠককে বুঝতে সাহায্য করুন, এমনটা যে কারো জীবনে এমনটি ঘটতে পারে। অনুভব করতে শেখান, পরিস্থিতি কিভাবে সামাল দিতে হয়?


ধাপ ৬: যেনো সবকিছুই শেষ হয়ে গেছে:

লেখার এই পর্যায়ে এসে পাঠককে এটা বুঝতে দেন, যেনো সবকিছু হারিয়ে গেছে। নায়কের জীবনে এমন ধ্বংসলীলা শুরু করে দিন যাতে মনে হয়, এরপর আর দাড়াতে পারবে না। নায়কের চেয়ে খলনায়ককে শক্তিশালী করে তুলুন। নায়ক-খলনায়ককে সামনাসামনি হাজির করুন এবং নায়ককে হেরে যেতে দিন। এবার পাঠক আপনার নায়ককে জেতানোর জন্য সব কিছু মানতে প্রস্তুত!


ধাপ ৮: অনেকটা হেরে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি করুন:

গল্পে এমন পরিস্থিতি তৈরি করুন, যাতে আপনার প্রধান চরিত্র্রের হেরে যাওয়া ৯৯ ভাগ নিশ্চিত হয়ে গেছে। জেতার সম্ভাবনা একেবারেই কম!! যাতে প্রতিশোধ ছাড়া আর কোনো বিকল্প না থাকে!!


ধাপ ৯: অসাধারণ একটি সমাধান বের করুন:

নায়ককে এমন পরিস্থিতিতে ফেলার পর, খলনায়ককে তৃপ্তি পেতে দিন। আর নায়কের জন্য একটি অসাধারণ সমাধান বের করে ফেলুন। ভিলেনের বিজয় উল্লাসকে নষ্ট করে দিয়ে নায়ককে জিতিয়ে দেয়ার ইংগিত দিন।


ধাপ ১০: নায়কের জয় নিশ্চিত করুন:

গল্পে আপনি আপনার নায়কের জয় নিশ্চিত করুন। হোক সে হৃদয়বিদারক কিংবা আনন্দদায়ক। যে কোনো মূল্যে তার বিজয় নিশ্চিত করুন।


ধাপ ১১: খলনায়ককে বেশী শক্তিশালী বানান:

নায়ককে জিতিয়ে দিলেও গল্পের শেষ হয়ে যায় না। এবার খলনায়ককে নায়কের চেয়ে বেশী জানে এমনভাবে উপস্থাপন করুন। পাঠক হিসেব মেলাতে হিমশিম খাবে, আসলে কে জিতলো। এমন পরিস্থিতি যিনি তৈরি করতে পারেন তিনি তো আসলেই ভালো লেখেন, তাই না?


ধাপ ১২: এক চরিত্র্রে একাধিক চরিত্র্র তৈরি করুন:

তোমার বসত করে কয়জনা—গানটা শুনেছেন তো? হ্যা এবার এবার একই চরিত্রে বিভিন্ন ব্যক্তিত্ব তুলে ধরুন। এমন একটি চরিত্রকে পাঠক লুফে নেবে না? বলেন কী?


ধাপ ১৩: অজানা কিছু চরিত্র তৈরি করুন:

একাধিক অজানা চরিত্র তৈরি করুন। যা অন্য কোনো চরিত্র্রের কাছে গোপন থাকবে। সুযোগ বুঝে তার সাথে অন্য চরিত্রগুলোর পরিচয় করিয়ে দিন।


ধাপ ১৪: প্রয়োজনীয় চরিত্রগুলোর প্রয়োজন আছে কি:

যে চরিত্র তৈরি করেছেন তার আদৌ কোনো প্রয়োজন আছে কি না, তা নিয়ে ভাবুন। বার বার পড়ুন। যা লিখেছেন, যে চরিত্র নির্মাণ করেছেন, হোক সে নায়ক কিংবা খলনায়ক- তার প্রয়োজন আছে কি না ভাবুন।


ধাপ ১৫: পাঠক যে বিষয়ে জানেন না:

এমন ঘটনার অবতারনা করুন, যা সম্মন্ধে পাঠকের কম ধারণা রয়েছে। একটু পাঠকের ভান্ডারে যোগ করুন নতুন ইস্যু, নতুন তথ্য, নতুন ধারণা।


ধাপ ১৬: চরিত্র্রের চেয়ে পাঠককে বেশী জানান:

কাহিনীতে এমন চরিত্র তৈরি করুন, যে চরিত্র্রের কথা আপনার প্রধান চরিত্র নাও জানতে পারেন। কিন্তু পাঠক অবশ্যই জানবেন। সত্য-মিথ্যা কিংবা গোপন প্রকাশের জন্য এমন চরিত্র্র প্রয়োজন হতে পারে। যা সম্পর্কে পাঠক জানবে, কিন্তু অন্য চরিত্রগুলো অনেক পরে জানবে। কিছু গোপন চরিত্র তৈরি করতে পারাটা আপনার গল্পে যোগ করবে ভিন্নমাত্রা।


ধাপ ১৭: বর্ণনা যোগ করুন:

এবার চরিত্রের বিবরণ দিন। কাউকে চরিত্র, কাউকে ধনী, কোনোজন শক্তিশালী কেউ কেউ ভীষণ দুর্বল। কারো চরিত্র ভালো, কারো চরিত্র একেবারেই খারাপ হিসেবে তুলো ধরুন।


ধাপ ১৮: মধ্যস্ততাকারী চরিত্র তৈরি করুন:

কয়েকটি মধ্যস্ততাকারী চরিত্র তৈরি করুন। কখনও তারা নায়কের সাথে যোগ স্থাপন করুন, কখনও তারা যুক্ত হোক খলনায়কের সাথে। কখনও সত্য বলুক, কখনও বলুক মিথ্যা। এমন মধ্যস্ততাকারীর কারণেই গল্পে ঘটে চলুক, সমস্যা-সম্ভাবনা-কুটিলতা-চটুলতার ঝিকঝিক গাড়ী। তাদের দ্বারাই ঘটিয়ে নিন অনেক ঘটনা। এদেরকে ঘটনঅঘটন পটিয়সীও বলতে পারেন!


ধাপ ১৯: একটি উপকাহিনী যোগ করুন:

পাঠকের তৃপ্তির জন্য গল্পে একটি উপকাহিনী যোগ করুন। আপনার গল্পের সমান্তরালে চলবে কিন্তু গল্পে কোনো প্রভাব পড়বে না, আবার পড়তেও পারে। অন্যান্য বিকল্প হিসেবে নতুন অক্ষর, নতুন সমস্যা, নতুন ভিলেন, নতুন তথ্য, এবং নতুন অস্ত্র যোগ করে তাদের একত্রিত করুন।


ধাপ ২০: বিশ্বাস-অবিশ্বাসের দোলাচল:

পাঠককে একটু বিভ্রান্ত করে তুলুন। প্রতিটি পাতায় দেয়া তথ্যকে কখনও পাঠকের কাছে বিশ্বাযোগ্য করে তুলুন, আবার পরমুহুর্তেই অবিশ্বাসের ইংগিত দিন। পাঠককে ভাবিয়ে তুলুন। এতে করে আপনার গল্পের আরো গভীরে মিশে যাবেন পাঠক। হয়ে উঠবেন আপনার গল্পের একটি অংশ।


ধাপ ২১: ভাল ও মন্দ চরিত্র তৈরি করুন।

গল্পে অবশ্যই একটি ভালো ও একটি মন্দ চরিত্র তৈরি করুন। যা সব অর্থেই অপরাজেয়।



ধাপ ২২: সমানাধিকার দিন:

খলনায়ক এবং নায়ককে সমান ক্ষমতা দিন। কখনও খলনায়ককে হারালেন তো কখনও নায়ককেও হারান। এর উদাহরণ হিসেবে হ্যারি পটার সিরিজের কথা বলা যেতে পারে। নিসন্দেহে হ্যারি পটারের হারজিতের সাথে পাঠক বা দর্শক হিসেবে আপনিও হেরেছেন বা জিতেছেন। এই অনুভূতিটাই গুরুত্বপূর্ণ। সেদিকে নজর রাখুন।


ধাপ ২৩: সমস্যা একত্রিত করুন:

গল্পের প্রথমেই সব সমস্যার কথা বলুন। একসাথে সব সমস্যাও যে একটা সমস্যা সেটাও বলুন। মৃত্যু, ধ্বংস, আগুন, যুদ্ধ সব একসাথে তুলে ধরুন এবং এর থেকে বেরিয়ে আসার পথ খুজুন। একটি সময়োপেযোগী সমাধান বের করু।


ধাপ ২৪: অপ্রত্যাশিত হত্যাচেষ্টা করুন:

একটি অপ্রত্যাশিত হত্যার চেষ্টা করুন। যদি দেখেন হঠাত করেই একটি চরিত্র সবার প্রতি ভালো আচরণ করছে তাকে মেরে ফেলুন। কোনো একজনকে নয়, সব চরিত্রকেই জিতিয়ে দিন।






লেখক পরিচিতি
সাজেদা হক
সাংবাদিক। লেখক।
ঢাকা। 




২টি মন্তব্য: