বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম'এর গল্পের ভুবন : আমি গল্প লেখার সঙ্গে গল্পকথনের ঐতিহ্যটা মেলাই।

গল্পপাঠ—
গল্প লিখতে শুরু করলেন কেন?

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
১৯৭৩ সালের অক্টোবরে প্রথম গল্প ছাপা হয়। এরপর দীর্ঘ স্বেচ্ছাবিরতি। এর ১৯৮৯ থেকে মোটামুটি নিয়মিত।



গল্পপাঠ—
শুরুর লেখাগুলো কেমন ছিল?

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
শুরুর গল্পটা নিরীক্ষাধর্মী ছিল। ভাষা এবং মনোস্তত্ত্ব নিয়ে নিরীক্ষা।


গল্পপাঠ—
গল্প লেখার জন্য কি প্রস্তুতি নিয়েছেন? নিলে সেগুলো কেমন?

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
প্রস্তুতি হয়তো ভেতরে ভেতরে ছিল, কারণ ছোটবেলা থেকে রূপকথা শুনেছি, গল্প পড়েছি, গল্পের প্রতি প্রবল আকর্ষণ ছিল।


গল্পপাঠ—
আপনার গল্পলেখার কৌশল বা ক্রাফট কি?

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
আমি গল্প লেখার সঙ্গে গল্পকথনের ঐতিহ্যটা মেলাই। আমার গল্পে পাঠক সক্রিয় অংশগ্রহণকারী। আমি সর্বজ্ঞ হলেও খুবই দ্বিধান্বিত।


গল্পপাঠ—
আপনার নিজের গল্প বিষয়ে আপনার নিজের বিবেচনা কি কি?

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
আমার গল্পগুলি জীবন থেকে নেয়া, এজন্য সেগুলি জীবনের কাছে বিশ্বস্ত বলে আমি মনে করি।


গল্পপাঠ
আপনার আদর্শ গল্পকার কে কে? কেনো তাঁদেরকে আদর্শ মনে করেন?

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
রবীন্দ্রনাথ, গাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজ, জে ডি স্যালিঙ্গার, সৈয়দ ওয়ালিউল্লাহ, হাসান আজিজুল হক। ছোটগল্প তাদের হাতে প্রাণ পায়, তাদের জগৎটা জাদুতে ভরে যায়, সেজন্য।


গল্পপাঠ—
কার জন্য গল্প লেখেন? 

সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম
পাঠক মাথায় থাকেন না, কয়েক হাত দূরে থাকেন। আমি গল্প লিখি আর ভাবী সেটি পড়ছি, পাঠক শুনছেন। সেজন্য পাঠকের সম্মতিটা জরুরি, তার অংশগ্রহণটা জরুরি। পাঠক গল্পটি শুনে /পড়ে আনন্দ পেলে ভাবি সার্থক হয়েছি, তা না হলে গল্পে ফিরে গিয়ে কারণটা তালাশ করি। পরের গল্পে আরো যতœশীল হই

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন